ঢাকাসোমবার , ২০ জুন ২০২২

আন্তর্জাতিক নেতৃত্ব তুলে ধরতে জিএলটিএস এওয়ার্ড – ২০২২

Link Copied!

 

গ্লোবাল ল থিংকার্স সোসাইটি একটি আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা। যারা বিশ্বের ১০৬ টি দেশে কার্যক্রম পরিচালনা করে। ওয়ার্ল্ড রেকর্ড হোল্ডার এই সংস্থাটি তরুণদের দক্ষতা বৃদ্ধি, শান্তি প্রতিষ্ঠা এবং পরিবেশের পুনরুদ্ধারে কাজ করে যাচ্ছে।
সারা বিশ্ব জুড়ে তাদের সদস্য সংখ্যা ১ লক্ষের উপরে

১৮ই জুলাই ২০২২ ঢাকার পার্ল হোটেল বনানীতে ২০২০-২১ সালে সারা বিশ্বে জিএলটিএস সদস্যদের মধ্যে যারা সমাজের গুনগতন পরিবর্তনে বিশেষ ভূমিকা রেখেছে তাদের মধ্যে থেকে সর্বমোট ২৬ টি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সম্মাননায় ভূষিত করা হয়। যাদের মধ্যে বাংলাদেশ থেকে ১১ জন সদস্য, এবং আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ১১ জন সদস্য কে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে সম্মাননা দেওয়া হয়। সেই সাথে আরো ভিন্ন ৪ টি ক্যাটাগরিতে সেরা সহযোগিতাকারি গ্লোবাল পার্টনার সংস্থা, সেরা দেশ, সেরা জেলা এবং সর্বোচ্চ সহযোগিতাকারি প্রতিষ্ঠান ঘোষণা করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন অর্থনীতিবিদ ও জিএলটিএস এর গ্লোবাল উপদেষ্টা অধ্যাপক সৈয়দ আহসানুল আলম পারভেজ। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার ও জিএলটিএসের গ্লোবাল উপদেষ্টা ডেইভ ডাউল্যান্ড। সম্মানীয় অতিথি হিসেবে ছিলেন পরিবেশ কর্মী ও বাপার সাধারন সম্পাদক শরীফ জামিল, স্ট্রামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডাঃ আহমেদ কামরুজ্জামান মজুমদার, বসুন্ধরা এলপিজি এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর ইঞ্জিনিয়ার জাকারিয়া জালাল, আর্লা ফুড বাংলাদেশের মার্কেটিং প্রধান গালিব বিন মোহাম্মদ, ওয়ারফেজের ইভরাহিম আহমেদ কামাল
এই অনুষ্ঠানে জিএলটিএসের সম্মানীয় উপদেষ্টা মণ্ডলীদের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। উপস্থিত ছিলেন গ্রিন ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ডাঃ ফারহানা হেলাল মেহতাব,অতিরিক্ত সচিব, ডাঃ এস কে রেজাউল ইসলাম, সহকারী সচিব ডাঃ এ. টি. এম মাহবুবুল করিম, লেখক ও সাংবাদিক শান্তা মরিয়ম।

অনুষ্ঠানটি শুরু হয় বিকাল ৩ঃ০০ ঘটিকায় জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে। একে একে অতিথিরা তাদের অনুভূতি ও পরিকল্পনা তুলে ধরেন। এরপরই সম্মাননা তুলে দেওয়া হয় মনোনীত দের হাতে। এবং “সবুজ যুদ্ধ, সবুজে মুক্তি” সারা দেশে গাছ লাগানোর আন্দোলনের ডাক দেন সংগঠনটির সভাপতি এবং সকল অতিথিদের মাঝে গাছে চারা তুলে দেওয়া হয়।
প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে স্পষ্ট করেন – বর্তমান সময়ে মানুষ মাদক, মানুষ পাচার, হত্যা, দুর্নীতি এরকম অনেক কাজের সাথে জড়িত, আর আজকে এখানে যারা আছেন জিএলটিএস লিডারগন তারা সমাজের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন, এই পরিবর্তনের ধারাবাহিকতা অক্ষুন্ন রাখতে সকলের সম্মেলিত উদ্যেগ আরো প্রয়োজন।

প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডেন্ট রহমান স্মিতা উক্ত অনুষ্ঠানে তার বক্তব্যের মাধ্যমে জিএলটিএস এর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা তুলে ধরেন এবং সকলকে একসাথে এই পৃথিবী আমাদের বসবাসযোগ্য করতে সকলকে এগিয়ে আসার জন্য আ্যহ্বান জানিয়েছেন এবং সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞপন করে সর্বশেষে সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আহসানুল আলম জন।