ঢাকাশুক্রবার, ২৮শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, দুপুর ১:৪৭
আজকের সর্বশেষ সবখবর

অবশেষে মারা গেল নালিতাবাড়ীর ধর্ষিতা কিশোরী জোনাকি

আরএম সেলিম শাহী, শেরপুর প্রতিনিধি।
জানুয়ারি ১০, ২০২২ ২:৩৩ অপরাহ্ণ
পঠিত: 48 বার
Link Copied!

ধর্ষণের শিকার হয়ে পুলিশের আশ্রয় নিতে চাইলে স্থানীয় লোকজন ও মাতব্বরদের বাঁধা, অতঃপর এলাকাবাসীর ভর্ৎসনার অপমান সইতে না পেরে বিষপান করে মৃত্যুর সাথে ১৭ দিন পাঞ্জা লড়ে অবশেষে মারা গেল নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া জোনাকি আক্তার (১৫)। এই নির্মম ঘটনাটি ঘটেছে শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার যোগানিয়া ইউনিয়নের কুত্তামারা গ্রামে। জোনাকি আক্তার ওই গ্রামের আব্দুল জব্বারের মেয়ে।
এই ঘটনায় শনিবার নালিতাবড়ী থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ধর্ষক নাজমুলের দুই ভাই সুলতান মিয়া ও লাল মিয়াকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠিয়েছে।
পুলিশ ও মেয়েটির পরিবার সূত্রে জানা গেছে, জোনাকির মা ঢাকার একটি পোষাক কারখানায় কাজ করেন। গত ১৬ নভেম্বর রাত সাড়ে ১১টার দিকে জব্বার তার মেয়েকে বাড়িতে রেখে পাশের বাজারে চা খেতে যান। শেরপুর  সদরের চান্দেরনগর গ্রামের চাঁন মিয়ার ছেলে নাজমুল (২৮) কুত্তামারা গ্রামে ড্রেজার দিয়ে মাটি কাটার কাজ করতো। সুযোগ বুঝে নাজমুল জোনাকিকে বাড়িতে একা পেয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে জোনাকির ডাক-চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে নাজমুল পালিয়ে যায়।
জব্বার বাড়ি ফিরে ঘটনা জেনে  পুলিশের আশ্রয় নিতে চাইলে স্থানীয় লোকজন ও মাতব্বররা তাতে বাঁধা দেয় এবং স্থানীয়ভাবে মীমাংসার উদ্যোগ নেয়। ঘটনা জানাজানি হলে মেয়ের সর্বনাশ হবে ভেবে জব্বার সেই পরামর্শ মেনে নেন। কিন্তু একপর্যায়ে ঘটনাটি এলাকায় প্রকাশ হয়ে পড়ে। ফলে লোকেরা ভর্ৎসনা করে কথাবার্তা বলতে থাকালে অপমানে গত ২১ ডিসেম্বর বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায় জোনাকি।
প্রথমে নালিতাবাড়ী ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা করে কিছুটা সুস্থ হলে জোনাকিকে বাড়িতে আনার পরদিন‌ই তার অবস্থার অবনতি হয়। পুনরায় জোনাকিকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। অবশেষে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সেখানেই মারা যায় জোনাকি।
এদিকে মেয়ের শারীরিক অবস্থা খারাপ হতে থাকায় ২জানুয়ারি জব্বার বাদী হয়ে নালিতাবাড়ী থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে নাজমুলের দুই ভাই সুলতান ও লাল মিয়াকে গ্রেপ্তার করে শনিবার আদালতে পাঠিয়েছে।
এই ব্যাপারে স্থানীয় চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ সাংবাদিকদের বলেন, ঘটনাটি আমাকে আগে কিছুই জানায়নি। আজ পোস্টমর্টেমে সমস্যার সম্মুখীন হয়ে আমাকে জানালে আমি পোস্টমর্টেমের জন্য সহযোগিতা করেছি।
নালিতাবাড়ী থানার ওসি বছির আহমেদ বাদল জানান, এ ঘটনায় মেয়ের বাবা আব্দুল জব্বার বাদী হয়ে থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। ইতিমধ্যেই সহযোগী দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রধান আসামিকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।