ঢাকাশুক্রবার , ১৭ ডিসেম্বর ২০২১

মোংলায় আ’লীগের উদ্যোগে বিজয় দিবস পালন

আলী আজীম,মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি।
ডিসেম্বর ১৭, ২০২১ ১০:১২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

 

মোংলায়: মোংলায় আ’লীগের উদ্যোগে যথাযথ মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালিত হয়েছে। বিজয় দিবসের প্রথম প্রহরে মোংলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়েছে।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১৬ ডিসেম্বর) সকালে উপজেলা ও পৌর আ’লীগ ও সহযোগী সংগঠনের আয়োজনে মোংলা দলীয় কার্যালয় থেকে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষীন করে আবার দলীয় কার্যালয়ে এসে শেষ হয়। আনন্দ র‍্যালী শেষে দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা, মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করা হয়।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায়
গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিবেশ, বন ও জলবায়ু বিষয়ক উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি কষ্টার্জিত স্বাধীনতা রক্ষায় ও দেশের উন্নয়নে এবং দলকে আরো সুসংগঠিত করতে আগামী প্রজন্মকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু বিশ্বাস করতেন আজকের শিশুরাই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। ভবিষ্যৎ দেশ গড়ার নেতৃত্ব দিতে হবে আজকের শিশুদেরকেই। তাই শিশুরা যেন সৃজনশীল, মননশীল এবং মুক্তমনের মানুষ হিসেবে গড়ে ওঠে। ইতিহাসের চলিষ্ণু কলম লিখে যায় কত ইতিহাস। আমরা সেসব তুলে ধরে কাউকে বিব্রত করতে চাইনা। কারণ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তাঁর কন্যা আমাদের সে শিক্ষা দেননি। আমরা কক্ষনো একথা বলতে চাইনা যে, ১৯৯৩ সালের ৮ জানুয়ারি পাকিস্তানের সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আসিফ নওয়াজ জানজুয়ার মৃত্যুতে কেন শোকবার্তা পাঠিয়েছিলেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া! অথচ মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীকে পরাজিত করে আত্মসমর্পণ দলিলে স্বাক্ষর করা বাংলাদেশ-ভারত যৌথবাহিনীর জেনারেল অরোরা মৃত্যুবরণ করেন ২০০৫ সালে, তখনও বেগম জিয়া দেশের প্রধানমন্ত্রী। তাঁর মৃত্যুতে বেগম জিয়াতো কোনো শোক প্রকাশ করেননি? তিনি গভীর শোকপ্রকাশ করেছিলেন বাংলাদেশের মানুষের উপর ১৯৭১ সালে পাকিস্তানী সেনাবাহিনীর গণহত্যা অভিযানে সরাসরি অংশ নেওয়া তৎকালীন মেজর জানজুয়ার মৃত্যুতে। অবশ্য সে সময় অনেকে নানা মুখরোচক কথা বললেও আমরা সেসব বিশ্বাস করতে চাই না এবং মনে করিয়ে দিতে চাইনা। দেশের মানুষ এত সহজে সবকিছু ভুলে যায়না।

উপজেলা আ’লীগের সভাপতি বাবু সুনিল কুমার বিশ্বাস’র সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যানদের মধ্যে মোংলা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহীম হোসেন, পৌর মেয়র ও পৌর আ’লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আঃ রহমান, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব শেখ কামরুজ্জামান জসিম, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ইস্রাফিল হাওলাদার, সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন,পৌর যুবলীগের সভাপতি কবির হোসেন, পৌর কাউন্সিলরসহ সহোযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।
পরে ১৯৭১ সালে নিহত সকল শহিদদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া মাহফিল আনুষ্ঠিত হয়।

নিউজরুম বিডি২৪।