ঢাকাবৃহস্পতিবার, ৯ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সন্ধ্যা ৬:৩১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

স্ত্রীর ধর্ষণ মামলায় স্বামীর যাবজ্জীবন 

আরএম সেলিম শাহী, (শেরপুর প্রতিনিধি)।
নভেম্বর ২৪, ২০২১ ১:২২ অপরাহ্ণ
পঠিত: 66 বার
Link Copied!

 

 

তালাকের বিষয় গোপন করে আড়াই বছর ঘর-সংসার করার অভিযোগে স্ত্রীর দায়ের করা ধর্ষণ মামলায় শেরপুরে একজনের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ডের রায় দিয়েছে আদালত।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. আখতারুজ্জামান মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) দুপুরে এ সাজার রায় ঘোষণা করেন। মামলার শুরু থেকেই সাজাপ্রাপ্ত শ্রীবরদী উপজেলার গড়জরিপা গ্রামের বাসিন্দা শাহ আলী (৪৭) পলাতক রয়েছেন। রায়ের একইসাথে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পিপি মো. গোলাম কিবরিয়া বুলু রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সদর উপজেলার বয়রা গ্রামের বাসিন্দা ভিকটি নিজেই বাদী হয়ে ২০১৫ সালের ২৫ জানুয়ারী সদর থানায় মামলাটি দায়ের করেছিলেন। ঘটনাটি ২০১২ সালের ১৩ মে থেকে ২০১৪ সালের ১৪ নবেম্বরের মধ্যে ঘটেছে।

ওই সময় স্ত্রীকে তালাক দেওয়ার বিষয়টি গোপন রেখে স্ত্রী হিসেবে ভিকটিম বাদীর সাথে ঘরসংসার এবং শারীরিকভাবে মেলামেশা করেন সাজাপ্রাপ্ত শাহ আলী।

মামলার নথির উদ্ধৃতি দিয়ে পিপি জানান, স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রী ভিকটিমের দায়ের করা একটি যৌতুক মামলায় শাহ আলী ২০১৪ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি আদালতে স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পন করে ভিকটিমকে ২০১২ সালের ১৩ মে তালাক দিয়েছেন বলে উল্লেখ করেন।

কিন্তু তখনও ভিকটিমের সাথে স্ত্রী হিসেবে ঘর সংসার করছিলেন শাহ আলী। ঘটনাটি জানার পর ২০১৫ সালের ২৫ জানুয়ারী শাহ আলী এবং তার বাবা-মা ও আরেকজন সহ ৪ জনকে আসামী করে ভিকটিম বাদী হয়ে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯ (১) ধারায় ধর্ষণের অভিযোগে থানায় আরেকটি মামলা দায়ের করেন।

ওই মামলায় সদর থানার তৎকালীণ এস্আই আবুল কালাম আজাদ শাহ আলী সহ ৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট দাখিল করলেও আদালত ৩ জনকে বাদ দিয়ে শাহ আলীর বিরুদ্ধে চার্জগঠন করেন। মামলার শুরু থেকেই অভিযুক্ত শাহ আলী পলাতক রয়েছেন।

দীর্ঘ বিচারিক কার্যক্রম চলাকালে বাদী, তদন্ত কর্মকর্তা, চিকিৎসকসহ ৯ সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে মঙ্গলবার অভিযুক্ত পলাতক শাহ আলীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ের আরও ৬ মাসের কারাদণ্ডাদেশ ঘোষণা করেন। রায়ে রাষ্ট্রপক্ষের পিপি গোলাম কিবরিয়া বুলু সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

 

 

 

x