ঢাকাবৃহস্পতিবার, ৯ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সন্ধ্যা ৭:৪৭
আজকের সর্বশেষ সবখবর

প্রয়াত কবি ও গবেষক ড. হিমেল বরকত’র মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

আলী আজীম (মোংলা প্রতিনিধি)
নভেম্বর ২২, ২০২১ ১১:৫৫ পূর্বাহ্ণ
পঠিত: 105 বার
Link Copied!

মোংলাঃ অকাল প্রয়াত কবি, গবেষক ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. হিমেল বরকতের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সোমবার (২২ নভেম্বর) রুদ্র স্মৃতি সংসদ মিঠাখালী, সস্মিলিত সাস্কৃতিক জোট মোংলা, সমুদ্র সাহিত্য পরিষদ মোংলা, বন্ধু পর্ষদ, মোংলা, মিঠাখালী সিদ্দিক বাজার বণিক সমিতি, মোংলা সাহিত্য পরিষদ, আঁলোর পথে বন্ধু সমাজ সহ বিভিন্ন রাজনৈক দল ও বিভিন্ন সামাজিক এবং পেশাজীবি সংগঠনের যৌথ আয়োজনে

দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

কর্মসূচির মধ্যে ছিলো সোমবার সকালে র‍্যালী, কবির সমাধিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ,দোয়া ও মোনাজাত।

সোমবার সকাল ৯ টায় কবির গ্রামের বাড়ি মোংলার মিঠাখালীতে র‍্যালী, কবির মাজার জিয়ারত ও শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনে উপস্থিত ছিলেন, সাংবাদিক ও রুদ্র স্মৃতি সংসদ এর সভাপতি সুমেল সারাফাত, শিরিয়া বেগম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রবীণ শিক্ষক ওবায়দুল ইসলাম, মিঠাখালি ইউপি ১নং ওয়ার্ড সদস্য উকিল উদ্দিন ইজারাদার, কবি হিমেল’র বাল্য বন্ধু জানে আলম বাবু,মোংলা সম্মিলিত সাংস্কৃতি জোট এর সাধারণ সম্পাদক মামুন,রুদ্র স্মৃতি সংসদ,মোংলা এর ক্রীড়া সম্পাদক লিটন শেখ,প্রচার সম্পাদক সাংবাদিক বায়জিদ হোসেন,অন্তর বাজাও শিল্পী গোষ্ঠী’র প্রধান শিল্পী গোলাম মহম্মদ প্রমুখ।

ড. হিমেল বরকত ১৯৭৭ সালের ২৭ জুলাই বাগেরহাট জেলার মোংলার মিঠেখালী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন এবং ২০২০ সালের ২২ নভেম্বর ঢাকায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

ডা. শেখ ওয়ালীউল্লাহ ও শিরিয়া বেগমের ছোট সন্তান হিমেল বরকত ও বড় সন্তান প্রয়াত কবি রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ। হিমেল বরকত ১৯৯৪ সালে মোংলার সেন্ট পলস উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ১৯৯৬ সালে ঢাকার নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসি এবং পরবর্তী সময়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় অনার্স-মাস্টার্স ও ডক্টরেট ডিগ্রি লাভ করেন।

ঢাকা সিটি কলেজে শিক্ষকতার মধ্য দিয়ে ২০০৫ সালে হিমেল বরকতের কর্মজীবন শুরু হয়। ২০০৬ সালে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগে প্রভাষক হিসেবে যোগ দেন এবং ২০১৮ সালের ৫ জুন অধ্যাপক হন। মৃত্যুর পূর্ব মুহূর্ত পর্যন্ত এখানেই তিনি কর্মরত ছিলেন।

হিমেল বরকতের প্রকাশিত উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ হলো চোখে চৌদিকে (২০০১), দশ মাতৃক দৃশ্যাবলি (২০১৪), গবেষণাধর্মী গ্রন্থ প্রান্তস্বর ব্রাত্যভাবনা (২০১৭), সাহিত্য সমালোচক বুদ্ধদেব বসু গবেষণা গ্রন্থ (২০১৩), ছড়ায় ছড়ায় প্রকৃতির বিস্ময়, ছোট গল্প আয়না এবং পেনসিল ও রাবারের গল্প ইত্যাদি।

হিমেল বরকত সম্পাদিত গ্রন্থগুলো হলো রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ রচনাবলী (২০০৫), কবি ত্রিদিব দস্তিদারের কবিতা সমগ্র (২০০৫), চন্দ্রাবতীর রামায়ণ ও প্রাসঙ্গিক পাঠ (২০১২), রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহর শ্রেষ্ঠ কবিতা (২০১২), বাংলাদেশের আদিবাসী কাব্যসংগ্রহ (২০১৩), রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ স্মারকগ্রন্থ (২০১৫) ও রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহর প্রেমের কবিতা নিয়ে অনুকাব্য।
এ ছাড়া অপ্রকাশিত রয়েছে হিমেলের বেশ কিছু কবিতার বই ও গান।

 

x