ঢাকাবৃহস্পতিবার, ৯ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সন্ধ্যা ৭:০৫
আজকের সর্বশেষ সবখবর

পলাশ হত্যাকান্ডে ছাত্রলীগ যুবলীগের নেতাসহ ২২ জনকে আসামি করে মামলা

রহমত -ই -খোদা (স্টাফ রিপোর্টার)
অক্টোবর ৩১, ২০২১ ২:৪৫ অপরাহ্ণ
পঠিত: 260 বার
Link Copied!

 

লোহাগড়া উপজেলার চরমল্লিকপুর গ্রামে যুবলীগ নেতা পলাশ মাহমুদ (৩২) হত্যা কান্ডের ঘটনায় ছাত্রলীগ যুবলীগের নেতাসহ ২২ জনকে আসামি করে মামলা হয়েছে।

নড়াইল লোহাগড়া উপজেলার মল্লিকপুর ইউনিয়নের চরমল্লিকপুর গ্রামের পলাশ শেখ কে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ২৫ অক্টোবর (সোমবার) দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে।

দুই দিন পর ২৮ অক্টোবর, সন্ধ্যায় নিহত পলাশের মা পলি বেগম বাদী হয়ে লোহাগড়া থানায় এ মামলা করেন।

দৃর্ঘ্য দিনের ছাত্রলীগের মধ্যে রাজনৈতিক অভ্যন্তরীণ কোন্দল ছিলো।

মামলার বিবরণে আরো জানা যায়, মল্লিকপুর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন ও রাজনৈতিক বিরোধের জেরে পলাশকে হত্যা করা হয়েছে। মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে ধোয়ামল্লিকপুর গ্রামের শাহিদুর রহমান।
গত মেয়াদে মল্লিকপুর ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে পরাজিত হন শাহিদুর রহমান । এছাড়া শরিফুল ইসলাম ও মনিরুল ইসলাম এবং লোহাগড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সজিব মুসল্লি ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম কে আসামি করা হয়েছে।
সাথে ৮-৯ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে। লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ আবু হেনা মিলন জানান,বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কেউ আটক হয়নি। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,২৫ অক্টোবর (সোমবার) রাত ৮টার দিকে অজ্ঞাত কিছু যুবক পলাশের বাড়িতে এসে পলাশকে ডেকে নিয়ে যায়।
এরপর রাত্র সাড়ে ৮টার দিকে চরমল্লিকপুর গ্রামের জাফর মোল্যার বাড়ির পাশে থেকে পলাশের রক্তাক্ত মরা দেহ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা, পরে পলাশ কে উদ্ধার করে লোহাগড়া স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। ডাক্তার তাকে মৃত্যু বলে জানান। পলাশের মাথার কানের নীচে বড় ধারালো অ’স্ত্রের কো’প রয়েছে।

লোহাগড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের বেশ কিছু নেতা কে হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত্র কোনো হত্যা মামলার বিচার হই নাই।

মানুষ হত্যা করেও আসামিরা দাপটের সাথে এলাকায় রাজত্ব করে বেড়াচ্ছে, স্থানীয়দের দাবি বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে এই হত্যা কান্ডের বিচার করা হোক, যাতে রাজনৈতিক কারণে আর কারো মায়ের বুক খালি না হয়,কারো সন্তান যেনো আর তার পিতাকে এই ভাবে না হারাতে হয়।

x