ঢাকাবুধবার, ২৭শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রাত ৮:১২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ক্লুলেস হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন, একজন গ্রেফতার

মোঃএনামুল হক (নড়াইল জেলা প্রতিনিধি)
অক্টোবর ৯, ২০২১ ১:৫৭ পূর্বাহ্ণ
পঠিত: 83 বার
Link Copied!

নড়াইলঃ নড়াইলে পিএম অক্টোবর ৪৮ঘণ্টায় ক্লুলেস হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন, আসামী গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ডিজিটাল ডিভাইস ব্যবহার করে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে একটি ক্লুলেস হত্যা মামলার রহস্য উদ্ঘাটন ও আসামিকে গ্রেফতার করেছে নড়াইলের নড়াগাতি থানা পুলিশ। একই সময়ে তিন স্থানে অভিযান চালিয়ে আরো তিন আসামীর পরিচয়ও শনাক্ত করা হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও নড়াগাতি থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত ) ইকরাম হোসেন জানান, স্থানীয় ও হত্যার শিকার রাজু শেখের পরিবারের লোকজনের কাছ থেকে খবর পেয়ে গত রবিবার (৩অক্টোবর) নড়াগাতির কলাবাড়িয়া ইউনিয়নের কলাবাড়িয়া তালুকদার পাড়া এলাকার ধানক্ষেতের ফাঁকা জায়গা থেকে ২৪ বছর বয়সী একজন পুরুষের লাশ মাটিচাপা অবস্থায় উদ্ধার করা হয় এবং তার পরিবারের সদস্য দ্বারা উদ্ধার করা লাশের পরিচয় শনাক্ত করা হয়।

পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আরো জানান, নিহতের নাম রাজু শেখ (২৬), তিনি খুলনা জেলার রুপসা উপজেলার মহিষাঘুনী গ্রামের ইসলাম শেখের ছেলে,পেশাগত ইজিবাইক চালক।

ADVERTISEMENT

নিহত রাজু শেখ খুলনার রূপসা উপজেলার সেনের বাজার নামক স্থানে নিয়মিত ইজিবাইক চালিয়ে পরিবারের ভরণপোষণ করতেন।

তদন্তকারী কর্মকর্তা ইকরাম হোসেন আরো জানান, হত্যার ঘটনার দিন বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাত ৮টার দিকে সেনেরবাজার ইজিবাইক স্টান্ড থেকে ৩ জন যুবক ইজিবাইক চালক রাজু শেখের ইজিবাইক রিজার্ভে ভাড়া নিয়ে নড়াইলের নড়াগাতি থানা এলাকার কলাবাড়িয়ার তালুকদার পাড়া এলাকায় আসে।

প্রতিমধ্যে রূপসা উপজেলার আব্দুলের মোড় নামকস্থান থেকে আরো দুই যুবক তাদের সাথে হত্যাকারী যুক্ত হয়।

এবং ঘটনাস্থল নড়াগাতি তালুকদার পাড়া এলাকায় এসে ইজিবাইক ছিনতাই করার উদ্দেশ্যে ইজিবাইক চালক রাজু শেখকে গলায় গামছা পেঁচিয়ে হত্যা করে। হত্যার পর পাশে ধানক্ষেতে মাটি চাপা দিয়ে ইজি বাইক নিয়ে চলে যায়।

এ বিষয়ে অভিযান পরিচালনাকারী নড়াগাতি দুই এস আই নাজমুল হাচান ও খাঁন মাহবুব জানান, নড়াগাতি থানার অফিসার ইনচার্জ মোছাঃ রোখসানা খাতুন এর নেতৃত্বে আমরা ইজিবাইক ভাড়ার ঘটনাস্থল খুলনার রূপসা উপজেলার সেনের বাজার ইজিবাইক স্ট্যান্ড থেকে সিসিটিভি ফুটেজ দেখে ডিজিটাল ডিভাইস ও তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে ৩ জন আসামি শনাক্ত করতে সক্ষম হই।

ADVERTISEMENT

গত বুধবার রাতে একই সময়ে শনাক্তকৃত তিন আসামীর বাড়িতে আমরা তিনটি দলে ভাগ হয়ে অভিযান চালিয়ে কলাবাড়িয়া তালুকদার পাড়ার এস্কেন তালুকদারের ছেলে আলম তালুকদারকে হত্যায় সময় পরিহিত আসামী আলমের একটি শার্ট দেখে সনাক্ত করে গ্রেফতার করা হয় এবং হত্যার পর মাটি চাপা দেওয়ার কাজে ব্যবহৃত একটি কোদাল আলামত হিসেবে জব্দ করা হয়।

বৃহস্পতিবার ৭অক্টোবর২০২১ আসামী আলম তালুকদারকে নড়াইলের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোর্শেদ আলমের আমলী আদালতে সোপর্দ করেন,বিচারক মোর্শেদ আলমের কাছে হত্যার কথা স্বীকার করেন ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন।

নড়াগাতি থানার ওসি মোছাঃ রোখসানা খাতুন বলেন, গত ৩অক্টোবর রবিবার লাশ উদ্ধারের পর নিহত রাজু শেখের পিতা ইসলাম শেখ বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা রুজু করেন। এ মামলায় আটক আসামী আলম তালুকদারকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করা হয়।

নড়াইল পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায় বলেন,আমরা মামলার শুরু থেকেই আসামীদের সনাক্তে সিসিটিভি ফুটেজ ব্যাবহার করে আসামীদের সনাক্ত করতে সক্ষম হই। হত্যার পর মাটিচাপা দেওয়ার কাজে ব্যবহৃত একটি কোদাল আলামত হিসেবে সংগ্রহ করে আসামীকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করি।অন্য আসামীদেরকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।

তিনি আরো বলেন,ইতিপূর্বে ও নড়াগাতি থানার সুযোগ্য অফিসার ইনচার্জ মোছাঃ রোখসানা খাতুনের নেতৃীত্বে আরেকটি ক্লুলেস হত্যা মামলার রহস্য উদ্ঘাটন করা হয়েছিল।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

x