ঢাকারবিবার, ২৩শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সকাল ৯:০২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

পরিস্থিতির অবনতি হলে ফের আসতে পারে লকডাউন।

মামুন অর রশিদ (ডেস্ক ঢাকা)
আগস্ট ১২, ২০২১ ৬:৩৬ অপরাহ্ণ
পঠিত: 58 বার
Link Copied!

 

পরিস্থিতির অবনতি হলে ফের আসতে পারে লকডাউন।

 

দীর্ঘদিন লকডাউন থাকার পর লকডাউন শিথিলের একদিন পরেই বিভিন্ন মহল থেকে পুনরায় লকডাউনের কথায় জনমনে তৈরি হচ্ছে আতঙ্ক।  এই বিষয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন জানিয়েছেন, করোনাভাইরাস পরিস্থিতি অবনতি হলে আবারও দেশজুড়ে লকডাউন আরোপ করা হতে পারে ।

তিনি জানান, বিধিনিষেধ, লকডাউন বা শাটডাউন একমাত্র সমাধান নয়। তাই সবার সহযোগিতা নিয়ে সংক্রমণের উচ্চগতি নিয়ন্ত্রণে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার।

সচিবালয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে সাংবাদিকের সঙ্গে আলাপে সরকারের এসব ভাবনার কথা জানান জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী।

সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আক্রান্ত বাড়তে থাকলে এবং মানুষ না মানলে আবার লকডাউন দেয়া হবে। এর বিকল্প কিছু নেই।’

ফরহাদ হোসেন বলেন, ‘বিষয়টা সবাইকে উপলদ্ধি করতে হবে। অর্থনৈতিক বিপর্যয় পুরো বিশ্বেই। আর লকডাউন একমাত্র কোনো সমাধান নয়। একটানা ২৯ দিন, তারপর আরও কিছুদিন ছিল। সরকার চায় সবার সহযোগিতার মাধ্যমে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে।’

৩ আগস্টের আন্তমন্ত্রণালয় সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সব কিছু ধাপে ধাপে চালু করা হচ্ছে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী। বলেন, ‘একটানা নিষেধাজ্ঞা থাকায় মানুষ অর্থনৈতিকভাবে বিপর্যস্ত। যদিও করোনা পরিস্থিতি অনুকূলে নয়।

নতুন প্রজ্ঞাপনে পর্যটন কেন্দ্র চালুর কথা বলা হয়েছে। সেক্ষেত্রে পঞ্চাশ শতাংশ মানুষের ব্যবস্থা করা যাবে। আর ১৯ তারিখ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সব গণপরিবহন চালু হবে। মূলত জোর দেয়া হচ্ছে স্বাস্থবিধি মেনে চলার ওপর। এক্ষেত্রে আইনের প্রয়োগটাও কঠোর হবে।’

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া নিয়েও আলোচনা চলছে বলে জানালেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন বিকল্প নিয়ে ভাবা হচ্ছে। আশা করছি, সবাই সচেতন হবেন, তাহলেই পরিস্থিতির উন্নতি হবে। শনাক্ত পাঁচ শতাংশের নিচে আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।’

আর যদি সকলের উদাসীনতার কারণে আবার সংক্রমণের হার বাড়তে থাকে তাহলে লকডাউন দেয়া ছাড়া আর কোনো বিকল্প থাকবে না। তাই সকলকে অপ্রয়োজনে বাইরে বের না হওয়া এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য আহবান করেন তিনি।

 

নিউজরুম বিডি২৪।